১০০ টি দোকান, ব্যবসায় এবং অনলাইন বিজনেসের সুন্দর নামের তালিকা এবং নাম খুঁজে বের কর উপায়।

আপনি যদি আপনার দোকান, ব্যবসায় অথবা অনলাইন বিজনেসের জন্য সুন্দর এবং ভাল নাম খুঁজছেন, আপনি সঠিক জায়গায় আছেন।

 

দোকানের নাম

আপনি যদি আপনার দোকান, ব্যবসায় অথবা অনলাইন বিজনেসের জন্য সুন্দর এবং  ভাল নাম খুঁজছেন, আপনি সঠিক জায়গায় আছেন। দোকান, ব্যবসায় অথবা অনলাইন বিজনেসের নাম সব সময়ই ছোট, সুন্দর হতে হয়। আমরা এই পিছনের মার্কেটেং কৌশল নিয়ে আলোচনা করবে।

১০০ টি নামের তালিকা এই পৌষ্টের আরো নিচের দিকে রয়েছে। 

দোকানের নাম হতে হবে ছোট, সুন্দর, সম্পর্ক বা অন্য কিছু অনুপাতে বিবেচনা করা হয়। দোকানের সুন্দর নাম আপনি অনেক ভাবেই রাখতে পারেন। আপনি চাইলেই আপনার প্রিয় কোন মানুষের নামের সাথে মিল রেখে রাখতে পারেন যেমন আপনি বাবা-মা, সন্তান ইত্যাদি। আপনি যদি একটি আকর্ষণীয় (Attractive), সৃজনশীল (Creative) একটি নাম খুজে থাকেন তাহলে এইটি পুরোপুরি আপনার উপর নির্ভর করে আমি কোনটি আকর্ষণীয় (Attractive), সৃজনশীল (Creative) মনে করছে আর কোনটি আকর্ষণীয় মনে করছেন না।

আপনি ভিন্ন ভিন্ন ভাষা হতে একটি বা কিছু শব্দ নিতে পারেন। এই ক্ষেতে অব্যশই দেখে নিবেন ওই শব্দটি আপনার নিজের ভাষায় কোন নেগেটিব অর্থ আছে কি না। সাথে যে ভাষা থেকে শব্দটি নিচ্ছে ওই ভাষাই নেগেটিভ নাকি।

আমাদের দেশের ক্রিয়েটিব নাম বেশির ভাগই ইংলিশ ভাষার শব্দ দিয়ে করা হয়ে থাকে। ইংলিশ ভাষাই অনেক শব্দ আছে যার বাংলা অর্থ এক হলেই ইংলিশ অনেক গুলো শব্দ দিয়ে প্রকাশ করা যাই। আপনি চাইলেই এই ভাবে খুজে দেখতে পারেন। এই জন্য আপনি Google Translate ব্যবহার করতে পারেন।

আকর্ষণীয়(Attractive), সৃজনশীল (Creative) নাম রাখা আগে আপনাকে অনেক কিছুই বিবেচনা করতে হবে। তা নিয়ে আমরা বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে

মেসার্স কি এবং এর সঠিক ব্যবহার।

দোকানের নামের পরেমেসার্সবাট্রেডার্সদিয়া থাকে। আপনি কি জানেন কেন এই নাম ব্যবহার করা হয়? আজকে আপনা তা নিয়ে আলোচনা করবো।

মেসার্সঃ মসিয়ার (Monsieur) হলো এক ধরনের ফরাসি উপাধি; যার অর্থ জনাব/মহোদয়। মসিয়ার এর বহুবচন হলো মেইসিয়ারস, সংক্ষেপে বলা হয় মেসার্স (এর বাংলা অর্থ সর্বজনাব) আমরা মেসার্স উচ্চারণ করলেও অভিধানে একে বলা হয়মেসাজ জেনে রাখা ভালো, ‘মেসার্সশব্দটি ইংরেজিমিস্টারশব্দের বহুবচন।

মেসার্স শব্দটি সাধারণত বিভিন্ন বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানের নামের আগে ব্যবহৃত হতে দেখা যায়। কিন্তু এই শব্দটি বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই ভুল ভাবেব্যবহার করা হয় আমাদের দেশে। অসচেতনতার কারণেই এটা হয়ে থাকে। যেসব বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানের নাম কোনো মানুষের নামে এবং তার সঙ্গে অন্য আরো মানুষের সংশ্লিষ্টতা প্রকাশ করে যেমননুরুল অ্যাণ্ড ব্রাদার্সবাকেয়া অ্যাণ্ড কোম্পানি, সেসব বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানের নামের ক্ষেত্রেমেসার্সশব্দটি ব্যবহার করা যেতে পারে।

 

তা ছাড়াও যেসব বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানের নাম কোনো মানুষের নামে নয় যেমনহ্যালো ট্রেডার্সবাসুন্দরবন কুরিয়ার সার্ভিস’, সেসব প্রতিষ্ঠানের নামের আগেমেসার্সশব্দটির ব্যবহার সঠিক নয়। আবার আমরা যেমন নিজেরা নিজেদের নাম বলার ক্ষেত্রেমিস্টারবাজনাববলিনা, তেমনই বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানের ক্ষেত্রেমেসার্সশব্দটির ব্যবহার তেমনি হওয়া উচিত। অর্থাৎ কোনো বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানের নামনুরুল অ্যাণ্ড ব্রাদার্সবাতানভীর অ্যাণ্ড কোম্পানিহলেও নিজেরামেসার্সশব্দটি ব্যবহার করা যাবে না।

 

জেনে রাখা ভালো, কিছু ক্ষেত্রে ওই প্রতিষ্ঠানগুলোকে উদ্দেশ্য করে বাইরে থেকে কেউ যখন যোগাযোগ করবেন যেমন চিঠি বা -মেইলের মাধ্যমে, তখন তারা লিখবেনমেসার্স আলম অ্যাণ্ড ব্রাদার্সবামেসার্স গণেশ অ্যাণ্ড কোম্পানি এটি অনেকটা শোভনীয় পদ্ধতি। আবারমিস্টারশব্দটি পুংলিঙ্গ এবংমেসার্সশব্দটি তার বহুবচন হলেও কোনো বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠানের নামে, কোনো স্ত্রীলোকের নামে হলে এবং তার সঙ্গে অন্য কেউ জড়িত থাকলে যেমননিশি অ্যাণ্ড ব্রাদার্স’, উপরোক্ত নিয়মে এই ক্ষেত্রেওমেসার্সশব্দটি ব্যবহার করা যায়।

কেন নাম ছোট হতে হবে?

ছোট নাম হবার অনেক গুলো কারন আছে।

আপনার ব্র্যান্ড আপনার সম্ভাব্য গ্রাহকদের উপর একটি ছাপ তৈরি করতে সাত সেকেন্ড আছে।

  • প্রায় 60 শতাংশ ক্রেতা তাদের বিশ্বাস করা ব্যান্ডগুলি থেকে কিনতে পছন্দ করেন, তাই একটি শক্তিশালী ব্যবসায়িক নাম এবং ব্যান্ডপরিচয় দিয়ে শুরু করা এবং তারপরই এটি তৈরি করা চালিয়ে যাওয়া গুরুত্বপূর্ণ।
  • সেরা ব্র্যান্ডের 70 শতাংশেরও বেশি নাম তৈরি করা শব্দ বা সংক্ষিপ্ত শব্দ।
  • প্রায় অর্ধেক ভোক্তা তাদের প্রথম ক্রয় বা অভিজ্ঞতার সময় একটি ব্যবসা এবং ব্র্যান্ডের প্রতি আনুগত্য গড়ে তুলতে পারে।
  • আবেগপূর্ণ ব্র্যান্ড সংযোগ এবং অভিজ্ঞতা গুরুত্বপূর্ণ, 60 শতাংশেরও বেশি পুরুষ এবং মহিলা ব্র্যান্ডের মূল্যের সাথে আবেগগতভাবে সংযুক্ত।
  • সচেতনতা এবং স্বীকৃতি তৈরি করতে একটি ব্যবসার নাম এবং ব্র্যান্ডের সাথে পাঁচ থেকে সাতটি এক্সপোজার লাগে।

অনলাইন বিজনেসের সুন্দর নাম

ভালো নাম আপনার ব্যবসায় একটি সুন্দর প্রভাব ফেলে আপনার কাষ্টমারের উপর। ব্যবসায়টি যদি হয় অনলাইন তাহলে এর গুরুত্ব অনেক অংশেই বেড়ে যায়।

উপরের নিয়ম অনুযায়ী আপনি আপনার অনলাইন বিজনেসেরও নাম দিতে পারবে। আপনি অনলাইন বিজনেসের ক্ষেতে বেশ কিছু সুবিধা পাবেন। যেমন আপনি চাইলেই বুষ্ট করে আপনার ব্যবসায় সর্ম্পকে সাধারন মানুষের কাছে পৌছাতে পারবেন। এখানে সাধারন মানুষ বলতে আপনার টারগেটেড কাষ্টমার বুঝানো হয়েছে।

অনলাইন আপনি একটি নিদিষ্ট এলাকা বা সিটির মধ্যে অবব্দ না থেকে চাইলেই পৃথিবীর যে কোন প্রান্তেই আপনি আপনার ব্যবসাই পরিচালনা করতে পারবে।

ফেসবুক এবং গুগল এই দুইটির ব্যবহার কারি সব থেকে বেশি। সাধারনত এই দুইটি মাধ্যেমেই পেজ বুষ্ট করা হয়ে থাকে। আপনি চাইলেই কোন এক এলাকার, কিছু নিদিষ্ট ক্যাটাগরির মানুষ টারগেট করে বুষ্ট করতে পারেন। বাংলাদেশে বর্তমানে অনেক পন্যই তেমন CPC হয় না মানে প্রতি ক্লিক প্রতি তেমন খরচ করতে হয় না।

একটি পন্য আমেরিকার মত দেখে প্রতি ক্লিকে অনেক সময় ১০ ডলার হয়ে থাকে। যেই একই পন্য আমাদের দেশে ১০ পয়সা ২০ পয়সা হয়ে থাকে।

এই নিয়ে বিচতর আলোচনা করলে আমাদের আসলে উদ্দেশ্য হতে আমরা দূরে সরে যাবো। এই সম্পর্কে জানতে চাইলে আমাদের সাথে সরাসরি যোগাযোগ করুন।

কি ভাবে দোকানের নাম খুজবো?

এইটা পুরোপুরি নির্ভর করে আপনার উপর। আপনার কাষ্টমার এর কাছে যেই ভাবে আপনি পৌছাতে চান যেই ভাবেই নাম রাখতে হবে। এখানে গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা রাখে আপনার প্রতিযোগী ব্যবসায়ীগন। তাদের ব্যবসা নাম হতে আপনার নাম কত ভালো হছে এটাও দেখতে হয়।

বিভিন্ন উৎস হতে নাম সংগ্রহ করা যেতে পারে। অনেক সময় বাংলা নিউজপেপারেও অনেক শব্দ বা শব্দের গুচ্ছ পাওয়া যায় যা আপনি চাইলেই ব্যবহার করতে পারেন। ঠিক তেমনি নিউজ চ্যানেল, ইউটুব, ফেসবুক ইত্যাদিও মাধ্যমে বিভিন্ন ধরনের নাম পাওয়া যায়।

দোকানের, ব্যবসায় বা অনলাইন বিজনেসের নাম সংগ্রহ কালিন ৭ টি বিষয় গুরুত্ব সাথে বিবেচনা করা উচিত্র।

আমি যে কোন নাম দিয়ে দিলেই হল না । যেই নামটি আপনার ব্যবসার সাথে মিল থাকতে হবে। কাষ্টমারের বুজতে সুবিধা হবে এমন নাম হতে হবে। নাম এমন হতে হবে যাতে আপনার কাষ্টমার একবার দেখার সাথে সাথে তার মাথার মধ্যে আপনার ব্যবসার নামটি রয়ে যায় অনেক সময়। তাই নাম বিবেচনা করার আগে কিছু বিষয় মাথায় রাখতে হবে তা নিয়ে আলোচনা করা হল।

১. আপনার প্রতিযোগী কে জানুন

এইটি যে কোন ব্যবসায় জন্যই গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার। আপনি যেই ব্যবসায় করতে যান না কেন কোন কোন ব্যক্তি বা প্রতিষ্টান যেই ব্যবসায় আপনার আগে থেকেই করছে। আপনার যা কাষ্টমার তারা আপনা প্রতিযোগী ব্যবসায়ই কাছ থেকেও কিনা বেচা করবে।

যত বেশি সম্ভব কাষ্টমার আপনার ব্যবসায় দিকে আকৃষ্ট করতে হলে সব সময় আপনার প্রতিযোগীরা যা করছে তাদের থেকে কিছু হলেও বেশি বা ভালো কিছু করতে হবে। ঠিক সেই হিসাবেই, আপনার প্রতিযোগীদের থেকে ভালো একটি নাম রেখে আপনি এক কদম সামনে থাকতে পারেন।

আবার নাম রাখার সময় এইটাও দেখতে হবে যাতে কোন ভাবেই তাদের নামের কাছাকাছি আপনার নাম না চলে যায়। এই কৌশলটি কিছু সময় আপনাকে একটি বেশি লাভের মুখ দেখালেও দূর ভবিষ্যতে এইটা আপনার ব্যবসায় নাম খারাপ করতেও পারে।

২.আপনার দোকান বা ব্যবসায় অবস্থান

আপনি চাইলেই আপনার আশেপাশের দোকানের নামের মতই আপনার ব্যবসায় নাম রাখতে পারেন। আবার চাইলেই আউট অফ বাক্স চিন্তা করতে পারেন।

এখানে গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার হচ্ছে, সব জায়গা আপনি চাইলেই আউট অফ বাক্স নাম রাখতে পারবেন না। উদাহরণ সরূপ বলা যায়, যদি আপনার ব্যবসায় কোন আড়োত, পাইকারি ব্যবসায় হয় যা কোন লোকাল বা স্থানিও মার্কেটের মধ্যে তাহলে আপনি চাইলেই কোন বিদেশি শব্দ ব্যবহার করতে পারবেন না। বিদেশি শব্দ আমাদের বাংলা ভাষায় থাকা সস্তেও আপনি রাখতে পারবেন না।

অপরদিকে, আপনি অনলাইন ব্যবসায় যদি কোন লোকাল ব্যবসায় নাম দিয়ে থাকেন তাহলে তা তার পরিবেশ অনুযায়ী যাচ্ছে না।

তাই লোকেশন একটি গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখে নাম পছন্দ কবার সময়।

৩. সর্বত্র অনুপ্রেরণা জন্য দেখুন

এই কথাটি আমরা আগেই বলেছি, যে আপনার দোকানের নাম বিভিন্ন জায়গাই পাবেন। উৎস অনেক বেশি আপনার কাছে এখন শুধু আপনাকে তা খুজে বেড় করতে হবে। অনেক সময় দেখা যাই, অনেকই তাদের প্রিয় লেখকের কোন বই এর কোন চরিত্র নাম দিয়ে তাদের ব্যবসা পরিচালন করে থাকে। দোকানের নাম রাখা যাই যেই অনুযায়ী অথবা অনলাইন বিজনেসের জন্যও পার্ফেট নাম হতে পারে এই উৎস থেকে।

অনলাইন দোকানের জন্য নাম খুজতে চাইলেই আপনি বিভিন্ন বিদেশি লেখকের বই থেকেও নাম নিতে পারেন। এতে করে নামের উপর একটি অন্য ক্লাঞ্চারের ব্যবহার বৃদ্ধি পাবে।

৪. আপনার নাম ধারনা ব্রেনস্টর্ম (Brainstorm)

যেকোন উৎস হতে আপনি যে কোন শব্দ পছন্দ করবে তা পর বিভিন্ন ধরেন আলাদা আলাদা শব্দ যুক্ত করবেন এইতে একটি নতুন নাম বেড় হয়ে আছবে। এইটিকেই বলা হয় ব্রেইস্টর্মং। যখন আপনি কোন নতুন কোন উপায় বা কাজের ধরন বেড় করে তা হচ্ছে ব্রেইস্টর্ম। এইটি খুবি গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয় । ব্যবসার সকল ধরনের সিদ্ধান্ত সময়ই এইটি প্রয়োজন পরে থাকে।

দোকানের নাম খুজার সময়ও আপনারকে ব্রেনস্টর্ম করতে হবে। একটি নাম বহু সময় আপনার দোকান বা ব্যবসার সাথে থেকে যাবে তাই এটি খুজার সময় যত সম্ভব সৃজনশীল ততই ভালো।

৬. আপনার ধারণা সংক্ষিপ্ত তালিকা

আপনি বিভিন্ন উৎস হতে নামের খুজেছে, বিভিন্ন ভাবে ভালো নাম বেড় করার চেষ্টা করেছেন, ব্রেনস্টর্ম করেছেন এখন আপনার কাজ হল সব গুলো নাম যা আপনি এত সময় খুজেছেন তার একটি লিষ্ট করা। এই লিষ্ট করতে আমরা আপনাকে সাহায্য করবো আমরা কিছু শব্দ দিবো। আপনি চাইলেই তা দেখে নিতে পারেন।

Note: আমরা বাংলাদেশে ব্যবহৃত কিছু নামের প্রধান শব্দ লিষ্ট করেছি। আপনি আপনার মন মত অন্য শব্দ আগে বা পরে যুক্ত করে দেখতে পারেন। এতে একটি সৃজনশীল ও রুচিশীল নাম পেয়ে যাবেন আশা করা যায়।

  1. অরণ্য
  2. উচ্চাশা
  3. অল ইন ওয়ান
  4. উচ্ছ্বাস
  5. আত্মতৃপ্তি
  6. ইত্যাদি
  7. আয়োজন
  8. উপহার
  9. আনন্দ
  10. ঊষা
  11. ঐক্য
  12. অসাধারণ
  13. আশার আলো
  14. কল্পনা
  15. কল্যান
  16. সেরা
  17. গৌরব
  18. আল্পনা
  19. আলোর ছায়া
  20. ইউনাইটেড
  21. ইউনিটি
  22. ওপেন ওয়ার্ল্ড
  23. ইস্টার্ন প্লাস
  24. কম্ফোর্ট
  25. গ্রো ওয়াইল্ড
  26. আইডিয়াল
  27. ভিলেজ
  28. ক্রাউন
  29. সুপার
  30. বিগ
  31. ড্রিম
  32. রাইট চয়েজ
  33. সিটিজেন চয়েজ
  34. পিপলস চয়েজ
  35. ফাইভ স্টার
  36. রেইনড্রপ
  37. ক্লাসিক
  38. ইউথফুল ভিলেজ
  39. ফ্রেশ এন্ড অর্গানিক
  40. ক্যাপিটাল
  41. সিম্পল
  42. ফার্ম বয়
  43. প্রিমিয়াম
  44. সাইনলাইট 
  45. ডেইলি
  46. আওয়ার
  47. হাই গ্রেড
  48. ফ্রেশ এন্ড ফেয়ার
  49. ফার্মল্যান্ড
  50. নেচার
  51. এলিট
  52. ফ্যামেলি
  53. গ্রীন লিফ
  54. ইয়াং স্টার
  55. টুডেইজ
  56. ডিয়ার
  57. নিউ
  58. কোয়ালিটি
  59. এ গ্রেড
  60. ডিলাক্স
  61. স্বাধীন
  62. সুপার সেভার
  63. সান রাইজ
  64. ফেয়ার
  65. গুড এন্ড গ্রেট
  66. নিউ হোপ
  67. অভিজাত
  68. সূর্যালোক
  69. অথবা
  70. নিপুণ
  71. অতিথী
  72. আড়ম্বর
  73. লাগরিক
  74. অনাড়ম্বর
  75. অপরুপা
  76. অনাবিল
  77. একতা
  78. একের ভিতর সব
  79. বসুন্ধরা
  80. উত্তম
  81. প্রচেষ্টা
  82. প্রতিদিন
  83. শহরতলী
  84. সন্ধান
  85. মুক্ত
  86. জনতা
  87. বাহারী
  88. বর্নালী
  89. উদয়
  90. প্রধান
  91. সাদাসিধে
  92. স্বপ্নীল
  93. দুরন্ত
  94. দূর্দান্ত
  95. সারলাই
  96. অপরিচিতা
  97. কিউরেটর
  98. সাম্যবাদ
  99. গ্রথ
  100. মহা-গীত

৭.আপনার বন্ধু বা পরিবারের দোকানের নাম দেখান

আপনি এই তালিকা করার পর তা আপনার কোন বন্ধু বা কোন পরিবারের সদস্যকে দেখাতে পারেন। আপনার যে নাম গুলো বেশি পছন্দ হয়েছে তা তাদেরকে দেখালে তাদের মতামত পাওয়া যাবে। অনেক সময় অনেক কিছু আমাদের চোখের আড়াল হতেই পারে। উদাহরণ সরূপ বলতে গেলে, মনে করুন আপনি কোন নাম পছন্দ করেছেন কিন্তু আপনি জানেন না যে এই নামেই আপনার এলাকায় বা এলাকার বাহিরে অন্য কোন বড় দোকান আছে। এই তথ্যটি হয়তো আপনার কোন বন্ধু বা পরিবারের কেউ জানে।

আরো অনেক বেশি উদাহরণ দিয়া যাবে যা আমাদের পোষ্টের আসল উদ্দশ্য হতে অনেক দুরের কথা।

Conclusion 

একটি ব্যান্ডের নাম খুবি গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। আপনার কোম্পানির নাম প্রায়ই আপনার ব্র্যান্ডের প্রথম উপাদান যা গ্রাহকরা সম্মুখীন হবে। এটি অত্যাবশ্যক যে নামটি স্বতন্ত্র, খাঁটি, স্মরণীয় এবং স্থায়ী হয়, তাই এটি আপনার লক্ষ্য দর্শকদের সাথে অনুরণিত হয়। এটি তাদের মনের মধ্যে থাকা উচিত, আপনার ভোক্তাদের সাথে বিশ্বাস তৈরি করা এবং বজায় রাখা উচিত এবং আপনার কোম্পানির বিকাশের সাথে সাথে প্রাসঙ্গিক থাকা উচিত।

তাই দোকানের, ব্যবসায় এবং অনলাইন বিজনেসের নাম রাখার সময় অতিরিক্ত সতর্ক হতে হবে। যা খুশি তা রেখে দিলেই হবে না। এই সব নাম এক সময় কোন প্রয়োজনীয় ব্যাপার ছিল না। কিন্তু বর্তমানে তা খুবি গুরুত্বপূর্ণ মনে রাখতে হবে এই কথাটি। 


Contact with us