অনলাইন বিজনেস, অনলাইন ব্যবসা করার সেরা উপায় এবং মোবাইলের মাধ্যমে অনলাইন বিজনেস করার নিয়ম

আপনি হয়তো অনলাইনে ব্যবসা করতে চাচ্ছেন বা অনলাইনে আয় করার কথা ভাবছিন কিন্তু কোন উপায় বৃদ্ধি পাচ্ছেন না কি করবেন তাহলে আপনি ঠিক জায়গাতেই এসেছেন।

 

অনলাইনে ব্যবসা

আপনি হয়তো অনলাইনে ব্যবসা করতে চাচ্ছেন বা অনলাইনে আয় করার কথা ভাবছিন কিন্তু কোন উপায় বৃদ্ধি পাচ্ছেন না কি করবেন তাহলে আপনি ঠিক জায়গাতেই এসেছেন। আমরা আপনার সকল ধরনের ভুল ধারনার ভেঙ্গে ফেলে, আপনাকে সঠিক পথে চলতে সাহায্য করবো।

অনলাইন ব্যবসা বলতে সাধারনত ফেসবুক এবং অন্যন্যা সোসাইল মেডিয়ার মাধ্যমে বিভিন্ন পণ্য বিক্রয় করাকে বুজায়। বিস্তারিত ভাবে বলতে গেলে, ফেসবুক বা অন্যন্যা সোসাইল মেডিয়া হচ্ছে একটি মাধ্যম মাত্র। আপনি যেই জিনিসটা কোন মার্কেটে দোকানের থেকে বিক্রয় করতে এখন তা আপনি সোসাইল মেডিয়াতে বিক্রয় বা সেবা প্রধান করছেন।

আপনি যদি ভেবে থাকে মোবাইলেই মাধ্যমে ইনকাম বা আয় করবেন তাহলে অনলাইন ব্যবসা হচ্ছে আপনার জন্য। শুধু পণ্য বিক্রয় করাই মধ্যেই অনলাইন বিজনেস সীমাবদ্ধ নয়। আপনি চাইলেই কোন পণ্য বিক্রয় করা ছাড়াও বিভিন্ন সেবা প্রধানের মধ্যমে অর্থ উপার্জন করতে পারেন।

কেন অনলাইন বিজনেস করবেন?

আপনি যদি কোন দোকানের মাধ্যমে কোন ব্যবসায় করে থাকেন তাহলে এই বিষয় গুলো আপনার কাছে বেশি পরিষ্কার হবে। সাধারনত কোন দোকান বা মার্কেট কোন নিদিষ্ট এলাকার মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকে। সাথে দোকান ভাড়া, দোকানে সাজসজ্জা, বিদ্যুৎ বিল ইত্যাদি খরচ আছে । কিন্তু এই সব খরচ অনলাইন ব্যবসাই সাধারনত নেই। দোকান ভাড়া নেয়া ছাড়াই ব্যবসা শুরু করা সম্ভব।

সব থেকে বেশি সুবিধা হচ্ছে অনেক বেশি কাষ্টমার থাকে।

আপনি আপনার ব্যবসায় ঠিক মত মার্কেটিং করতে পারলে, আপনি অনেক বেশি সেল দিতে পারবেন প্রতি মাসই। এমনও হতে পারে আপনি আপনার নিজের দেশের বাহিরও পন্য সেল করতে পারবেন অনলাইন ব্যবসার মাধ্যমেই।

মোবাইলের মাধ্যমে অনলাইন থেকে আয় করার সব থেকে সহজ উপায়

আপনি হয়তো চাচ্ছেন কোন ভাবে অনলাইন হতে আয় করতে। কিন্তু আপনার তেমন কোন সেক্টরে দক্ষতা নেই। তাহলে কি আপনি আয় করতে পারবেন না। হ্যা! অবশ্যই পারবেন। সাধারনত অনলাইনে কোন ডিজিটাল সেবার মাধ্যমে অর্থ উপার্জন করে থাকে প্রায় সবাই। এর জন্য প্রয়োজন কোন একটি ডিজিটাল সেক্টরে দক্ষতা অর্জন করা।

কোন প্রকার কাজের দক্ষতা ছাড়া আয় করার একটি মাধ্যম হচ্ছে অনলাইন ব্যবসা। এটির জন্য আপনার তেমন কোন প্রকার কাজের দক্ষতার প্রয়োজন নেই। আপনি আপনার সৃজনশীল এবং সমালোচনামূলক চিন্তাভাবনা (Creative and Critical thinking) দিয়েই কাজ করে নিতে পারেন।

আমরা বলছিনা আপনি কোন প্রকার ডিজিটাল কাজের দক্ষতা অর্জন করার প্রয়োজন নেই। আপনার যদি সোর্সাইল মিডিয়ার মার্কেটিং বা ডিজিটাল মার্কেটিং অথবা মার্কেটিং এর উপর কোন প্রকার দক্ষতা থাকে তাহলে তা আপনার ব্যবসাই অনেক বেশি সাহায্য করবে। যা আপনার ব্যবসার সফলতার অন্যতম কারন হয়ে দাঁড়াবে।

ব্যবসায় সব থেকে বেশি প্রয়োজন সৃজনশীল এবং সমালোচনামূলক চিন্তাভাবনা (Creative and Critical thinking) এখন যেই ব্যবসা অনলাইন হক বা অফলাইন।

আরো পড়ুনঃ জেনে নিন দোকানের সুন্দর নামের তালিকা করার নিয়ম ।

অনলাইন বিজনেস কিভাবে করব

অনলাইনে ব্যবসা করার নিয়ম


অনলাইন বিজনেস যদি আপনি এক-মালিকানা বা অংশিদারি মালিকানায় করতে চান তাহলে এটির নিয়ম সাধারন ব্যবসার মতই হবে।

এখন প্রশ্ন হল অনলাইন ব্যবসা বা বিসনেস কিভাবে করবো? আপনার প্রথমে সিন্ধান্ত নিতে হবে আপনি কি বা কোন ধরনের সেবা বা পণ্য বিক্রয় করবেন। সেবা বা পণ্য নির্ধারন করার পর এই ভার সিন্ধান্ত নিতে হবে কোন মাধ্যেমে আপনি আপনার কাষ্টমারের কাছে পোঁছাবেন।

এর দুইটি জিনিস ঠিক করার পর আপনি আপনার ব্যান্ডের মার্কেটিং করবেন। পণ্য বিক্রয় আদেশ  (sales order) পাবার পর তা কোন মাধ্যমে পাঠাবেন।

অনলাইন বিজনেসকারিরা বেশির ভাগ সময় এমন কোন কুরিয়ার সার্ভিস নির্ধারন করে যার আউটলেট প্রায় দেশের সব জায়গাতেই কম বেশি আছে। এতে আপনার কাষ্টমারের পণ্য বুঝে পেতে তেমন অসুবিধা হবে না।

আপনি চাইলেই হোম ডেলিভারিও দিতে পারেন। এতে আপনার কাষ্টমার কোন এক নিদিষ্ট এলাকার মধ্যে হতে হবে যেই এলাকায় আপনি হোম ডেলিভারি নিশ্চত করতে পারবেন।

কাপড়ের ব্যবসা করার নিয়ম

অনলাইন ব্যবসায় করার প্রায় সব গুলোই নিয়ম এক রকম। আপনি যদি চান কাপড়ের বিজনেস করতে তাহলে আপনাকে প্রথমে ঠিক করতে হবে আপনি কোন ধরনের কাপড় বিক্রয় করবেন। আপনি চাইলেই ছেলেদের বা মেয়েদের কাপড় আবার উভয় ধরনের কাপড় বিক্রয় করতে হবে। আবার চাইলেই আপনি চাদর, পর্দা এই সবও বিক্রয় করতে পারেন।

পণ্য চাইলেই আপনি নিজেও প্রথমে ক্রয় করে, সামাজিক মাধ্যমে প্রচার করতে পারেন আবার যদি কোন রিটেল সপ, হোল সেলার সাথে আপনি কন্টাক করে নিতে পারেন। তাহলে আপনার বিক্রয় আদেশ  (sales order) অনুযায়ী পণ্য সেলার থেকে নিয়ে আপনার কাষ্টমারকে দিতে পারেন। এমন করলে আপনার শুধু সামাজিক মাধ্যমে প্রচার করেই ইনকাম করতে পারবেন।

অনলাইন ব্যবসার জন্য মৌলিক বিপণন নীতি বা মার্কেটিং নীতি

ভালোভাবে মার্কেটিং করাটা খুবি জরুরি একটি বিষয়। এর উপর নির্ভর করে আপনার ব্যবসা কেমন সফলতা লাভ করবে। আপনি যদি এই বিষয় তেমন অভিজ্ঞ না হয়ে থাকে তাহলে দক্ষ কারো সাহায্য নিতে পারেন। আর যদি আপনি করতে চান তাহলে কিছু দিক নিদেশনা আমাদের থেকে।

প্ল্যাটফর্মের সিদ্ধান্ত নিনঃ আপনি কোন মাধ্যমে বিজনেস করতে চান তা নির্ধারন করা। আপনি যদি মনে করে থাকে আপনি ওয়েব সাইটের মাধ্যমে বিক্রয় করবেন তাহলে যেই অনুযায়ী কাজ করতে হবে। সাথে আপনি ফেসবুক, ইনস্টাগ্রাম, টুইটার ইত্যাদি ব্যবহার করতে পারেন। এইটি নির্ভর করে আপনি কি বা কোন ধরনের সেবা বা পণ্য বিক্রয় করতে চাচ্ছেন তার উপর। আপনি যদি কন্টেন রাইটার হয়ে থাকেন তাহলে আপনি লিঙ্কডইনে (Linkedin) মার্কেটিং করতে পারেন এতে আপনার কাষ্টমার পাওয়ার সম্ভাবনা বেশি।

ফেসবুক হতে পারে অন্যতম ভালো একটি মাধ্যম। এইটি ব্যবহারকারীর সংখ্যা অনেক বেশি হওয়ার কারনে সকল ধরনের কাষ্টমার এই প্ল্যাটফর্মের পাওয়া যায়।

আপনার কাষ্টমারকে (Know your audience): আপনার প্রকৃত কাষ্টমার কে বা কারা এইটা জানা খুবি জরুরি। আপনি চাইলেই মেয়েদের চুলের বিভিন্ন পণ্য ছেলে কাষ্টমারের কাছে প্রচার করলে তেমন লাভ করতে পারবেন না। তাই আপনার কাষ্টমার জানতে হবে, যে কোন বয়সের, কোন এলাকার, কোন ধরনের ইত্যাদি মানুষ আপনার সেবা বা পণ্যটি বেশি ক্রয় করে থাকে।

এর সব তথ্য যত বেশি আপনি জানতে পারবে আপনার ব্যবসায় তত বেশি লাভবান হবেন। এই সব তথ্য আপনি পেয়ে যাবেন বিভিন্ন সার্ভের মাধ্যেম, আপনার ক্রেতার মতামতের উপর ভিত্তি, আরও বিভিন্ন সোর্স হতে।

আরো পড়ুনঃ অনলাইন বিক্রেতাদের আয়কর রিটার্ন বাধ্যতামূলক

আপনার ব্যবসা প্রসারিত করুন(Expand your audience): আপনি যদি সব সময় বা একটি লম্বা সময় ধরে অল্প কিছু কাষ্টমার নিয়ে পরে থাকেন তাহলে আপনি বেশি দূর আগাতে পারবেন না। যত আপনার ব্যবসায় বিস্তার হবে তত আপনার বিভিন্ন ধরনের খরচ বৃদ্ধি পাবে। মোট আয় থেকে খরচ বাদ দিয়ে লাভ করতে চাইলে প্রতি নিয়ত আপনার ব্যবসা বৃদ্ধি করে যেতে হবে।

নতুন নতুন মার্কেট প্লেস, নতুন ধরনের সেবা বা পণ্য প্রতি নিয়তই ব্যবসায় আনতে হবে। ব্যবসায় বাজারে ঠিকে থাকার জন্য।

সম্পর্ক গড়ে তুলুন (Build relationships) সম্পর্ক গড়ে তুলুন আপনার কাষ্টমারে সাথে, হোল সেলারদের সাথে। ভালো সম্পর্কের ফলে ব্যবসা লম্বা সময় ঠিকে থাকতে পারে।

আপনি ফেসবুক বা অন্য প্লাটফমে আপনার সেবা বা পণ্য রিলেডেত পৌষ্ট করতে পারেন। সৃজনশীল পৌষ্টের মাধ্যমে আপনি আপনার কাষ্টমারে দৃষ্টি আকর্ষন করতে পারেন খুবি সহজেই।

মনোযোগ দিন সমসাময়িক বিষয়ে(Pay attention to trends) এইটি খুবি গুরুত্বপূর্ণ আপনার ফেসবুক বা অন্য প্রাল্টফমের লাইক, সেয়ার, ফলোয়ার বাড়ানোর জন্য।

ফেসবুক বুষ্ট, অনলাইন ব্যবসা বা বিজনেস করার ইডিয়া জানতে আমাদের সাথে থাকুন। খুব তাড়াতাড়ি আপলোড হয়ে যাবে।